Hits: 0

এমন যদি হতো..

এমন যদি হতো.... আঁধার-ঢাকা আকাশ খানা আলোয় ভরে যেত, লক্ষ পাখির কিচির মিচির শুনে সকাল হতো। এমন যদি হতো.... মানুষগুলো হিংসা ভুলে বন্ধু হয়ে যেত, কারো দুঃখে সবাই দুঃখী সুখে সুখী হতো। এমন যদি হতো.... জুলুম-পীড়ন,রক্তক্ষরণ বন্ধ…

এখানে ছড়াও রোদ্দুর

এখানে ছড়াও মুঠি মুঠি রোদ্দুর, গোলাপ ফুটুক হেথায় । এখানে ঝরাও অজস্র জলকণা, সিঞ্চনে তার সবুজ প্রাণে ভরুক এ আঙ্গিনা । প্রবাহিত কর স্নিগ্ধ বাতাস এইখানে জনপদে, বিষাক্ত বায়ু পরাভূত হোক নির্মলতার পসরা সাজুক, বুক ভরে আজ শ্বাস নিক…

চাঁদ যে এলো ঘরে

ফালি ফালি মেঘের ফাঁকে , চাঁদের উঁকি ঝুকি, রচে যেন আকাশ ঘিরে আলোর আঁকি বুকি । হাজার তারার নীলাভ আলোয় মুগ্ধ বসুন্ধরা , নহর যেন বইছে আলোর কেমন অবাক করা । মুক্ত পাখি পাখ ছড়িয়ে খুশির দোলায় নাচে, হিমালয়ের উচ্চ শিখর লাজে লুটায় নীচে ।…

সুস্থ সমাজ কল্পনা

যে দেশেতে দিন-দুপুরে হয় যে পুকুরচুরি, আবোল তাবোল কথার ফেরে নেই নেতাদের জুড়ি। যে দেশেতে ছলচাতুরী মিথ্যে কথার জয়, সেই দেশেতে কেমন করে সূর্য উদয় হয়?? যেই দেশেতে রাজার নীতি হত্যা, খুন আর গুমে, সেই দেশেতে শাপলা, তনুর বিচার হবে ভ্রমে?…

বৃষ্টি মেয়ে

বৃষ্টি পড়ে টাপুর টুপুর সন্ধ্যা আসে ছেয়ে, প্রভূর নামে জিকির করে বর্ষা নামের মেয়ে । দালান-কোঠা,গাছ-গাছালি ভিজছে সারা বেলা , রিমঝিমাঝিম ছন্দ তালে অষ্টপ্রহর খেলা । এই যে মেয়ে মিষ্টি গানে এসো উঠোন জুড়ে , এক পশলা সজীব হাওয়া…

শহর আমার গাঁ

ছুটির দিনে সব কোলাহল থেমে, আচমকা এক নীরবতা আসল কেমন নেমে। আশেপাশে পাখির কুজন হরেক রকম ডাকে, হঠাৎ আমি দেখছি আমায় গাঁয়ের কোন বাঁকে। গাড়ি ঘোড়ার নেই কলরব চলছে না তো লরী, শহর কেমন শান্ত নীরব স্নিগ্ধ রুপের পরী। চারধারে সব উঁচু…

ইচ্ছে করে

ইচ্ছে করে শহর ছেড়ে সবুজ গাঁয়ে লুকোই, ইট পাথরের খাঁচা খুলে, পাখির মতো পাখনা মেলে, নরোম পেজা মেঘের কোলে, মনের সকল জরা-গ্লানি কেজি দরে বিকোই। ইচ্ছে করে শহর ছেড়ে বেলাভূমে,সাগর পাড়ে, মুঠি মুঠি বালির পরে হারিয়ে ফেলে আমার আমি ঘুরি…

এক টুকরো শান্তি

আমি চাঁদের কাছে যাব, সেখানে একটি পরিপূর্ণ,টইটম্বুর সরোবর আছে... যেখানে লালপদ্ম দোল খায়,নির্মল সমীরণে...। আমি মঙ্গল,শনি বৃহস্পতি গ্রহে যাব যেখানে আকাশের রং গোলাপী-ধূসর,লাল জমিন, পাথুরে শক্ত মাটি...সেই পাথর কাঠিন্য আমি চাই আনমনে...।…

দীপ্ত ঘোষণা

নিস্তব্ধ ঘুমপুরী সুনসান... স্বপ্নের সপ্তস্তরে মোহাবিষ্ট বনী আদম , চেখে চলেছে শেষ রাত্রির আলিঙ্গনের স্বাদ .... হঠাত্ মুয়াযযিন হাঁকে আযান...। উদাত্ত সে আহ্বান দেয়ালে দেয়ালে তুলে আলোড়ন, মোহাবিষ্ট মানুষ ভাঙ্গে আড়মোড় , পবিত্রতার…

চাঁদের সখা

আধ ফালি চাঁদ ঐ আকাশের গায়, ফিসফিস চুপিচুপি ডাকে আয় আয়।। চারপাশে নিভে যায় শহরের ধুম, চাঁদ সাথে তখনো জাগি নির্ঘুম।। নিরিবিলি আলাপন সখা-সখি দুই, কষ্টের খাম ছিঁড়ে খোলাকাশে থুই।। আমি আর চাঁদ জাগি গল্পের ঢেউ, তারাগুলো ঘুম…

তুমি আমি ভিন্ন ভীষণ

তুমি আমি ভিন্ন ভীষণ, কথায় কথায় উল্টো ভাষণ, জীবন হলো বিটকেলে। ভালোবাসার গল্প হবে, রাত্রি দিনই সুর ছড়াবে একতালে। সুখ পাখি সব ফাঁকি? প্রেমের বানে চোখের কোণে, ধিকি ধিকি ছড়ায় দ্যূতি সব ফাঁকি? তুমি আমি ভিন্ন ভীষণ,…

একুশ আমার

একুশ আমার রক্ত-রাঙা রক্তে ভেজা মাসখানি, যে মাসেতে ভাষার তরে প্রাণ দিয়েছে কুরবানি। লক্ষ প্রাণের মাতৃভাষা বাংলা ভাষার জন্যে, বাংলা মায়ের দামাল ছেলে হয়েছিল হন্যে। বুকের খুনে ভিজিয়েছিল সবুজ শ্যামল দেশখানি, রক্ত দিয়ে ফের পেয়েছি…

চলো আশা জাগাই মনে ……

কখনও কখনও কিছু দলবদ্ধ বা একক মানুষ আমার চোখে পড়েছে যারা কোন বিপদগ্রস্থ লোককে বা একান্ত নিরুপায় হয়ে যখন কেউ তাদের কাছে সাহায্য বা পরামর্শের জন্য আসে তখন তাদেরকে প্রথমেই বিভিন্ন রকম উদ্ভট ও নেগেটিভ কথাবার্তা বলে মনের মধ্যে ভয়ের…

আমি এক কারিগর

আমি এক কারিগর ... হ্যাঁ , আমি মানুষ বানানোর কারিগর । নাহ্! আমার আর কোন পরিচয় নেই , আমি কাঁদা-মাটির নরম ডেলাগুলোকে , মনের সমস্ত ঐশ্বর্য দিয়ে সাজাই..... আর সেগুলো ধীরে ধীরে .... মানুষের রূপ নিতে থাকে । আমি তাদের মানুষের মতো…

অস্তিত্বের ধূম্রজালে

নিগার আজ শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে এসেছে ।চারদিকে মহা উৎসব,ধুমধাম ।গ্রামে আজ একটি বিয়ের অনুষ্ঠান ।এখানে বিয়ের অনুষ্ঠানগুলো অত্যন্ত জমজমাট ও উৎসবমূখর হয় এবং যেকোনো অনুষ্ঠানে গোটা গ্রাম একসাথে মেতে উঠে । বিয়ের অনুষ্ঠানে হলুদ মেহেদী থেকে শুরু করে…