জীবনের পূর্ণতা (৪)

0 ৪২

পর্ব-৪
সারার শ্বশুর বাড়িতে ইফতার করে সবাই জামায়াতে মাগরিবের নামাজ পরে ।তার পরই সবাই রাতের খাবার খায়। তারাবী নামাজ পড়ে হালকা নাস্তা করে সবাই ঘুমাতে যায়।
বাড়ির ছেলে-পুরুষরা তারাবী পড়তে চলে গেলে সারাও মেহরাজ কে ঘুম পারিয়ে নামাজ পরে নেয়।
অন্য রুমে আফরিনা আর মিরহা একসাথে নামাজ পড়ে। মাঝে মাঝে
পাশের বাসায় মহিলা জামায়াতে ওর শ্বাশুরী ও রুমা খালার সাথে নামাজ পড়তে যায় ।
– নামাজ শেষ করে সারার অনেক খারাপ লাগছিল ,
মেহরাজের পাশে শুয়ে পরলো। ক্লান্ত শরীর টা একটু বিশ্রাম পেতেই ও ঘুমিয়ে গেলো।
পায়ে কারোর স্পর্শে ঘুম ভেঙ্গে গেলো সারার। ওঠে দেখে মাহমুদ ওর পায়ে ঔষধ লাগিয়ে দিচ্ছে।
– এসব কি করছো তুমি? পায়ে ঔষধ দিচ্ছো কেন ?
আমিই তো দিতে পারতাম।
– তোমার আর ঔষধ দেওয়া।
পা টা যে এতটুকু পুড়ে গেছে ,
ইশ ,তোমার কত কষ্ট হচ্ছে ।সারাদিন শুধু সংসার নিয়ে পরে থাকো, নিজের শরীরের কোন যত্ন ও নেও না।
– আমার তো মনে থাকে না , অযু করতে গিয়ে মনে হয়েছিলো তাও আবার ভুলে গেছি।তাই বলে তুমি দিয়ে দিবা ?
– অবশ্যই, তুমি তো প্রতিদিন আম্মার পায়ে তেল মালিশ করে ঠিকই আমার জান্নাত পাওয়া সহজ করে দিচ্ছো ,আমি না হয় আমার প্রিয়তমা, যার পায়ের নিচে আমার সন্তানদের জান্নাত একটু সেবা শুশ্রূষা করলাম।
– তা বটে , এত মিষ্টি মিষ্টি কথা তুমি কি করে যে বলো ?
– আমার এ রানীর জন্য তো এসব কিছুই না।
– এজন্যই তো বলি , “তোমায় পেয়ে আমি ধন্য হয়েছি, ওগো ধন্য ।”
দুজন দুজনের দিকে তাকিয়ে হেঁসে ফেলল।

চলবে….

Hits: 1

Comments
Loading...