Hits: 4

হারকিউলিসকে থামাতে হবে

0

পত্রিকা খুললেই চোখে ভেসে উঠছে ধর্ষণের খবর এবং কোথাও কোথাও ধর্ষককে হত্যা করে নোট রেখে দেওয়ার ঘটনা। ধর্ষণ ও হত্যা দুটোই মানবতা গর্হিত একটি নিকৃষ্ট কাজ। ধর্ষিতার কষ্ট কেবল ভুক্তভোগী ছাড়া কেউ বুঝেনা এবং যখন বিচারহীনতা যুক্ত হয় তখন ধর্ষিতার শেষ আশাও নিঃশেষ হয়ে যায়। বিচারহীনতার,বিচারের দীর্ঘসূত্রতার সংস্কৃতি এদেশে নিত্যদিন ধর্ষণের সংখ্যা গানিতিক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছেই। আর এই বিচার না পাওয়ার কারনে মানুষের ভিতরেও ক্ষোভ গুলো পুঞ্জিভূত হচ্ছে। ধর্ষণের প্রতিবাদে তনু হত্যার পর হতে এদেশের মানুষের সামাজিক প্রচার মাধ্যমে, রাস্তায় নেমে বিচার চাওয়ার একধরনের প্রতিবাদ শুরু। কিন্তু সেই বিচার গুলো বিচারিক দীর্ঘসূত্রতার রেশ ধরে কিছুদিন আগের ধর্ষনের প্রতিবাদে দেশে শুরু হয়েছে ধর্ষকদের গুপ্ত হত্যা। ধর্ষকের শাস্তি হওয়া জরুরি কিন্তু বিচার বহির্ভূত এইসব হত্যাকান্ড সমাজের বিবেকবান মানুষদের আরো আতংকিত করে তুলছে। কাউকে হত্যার পর পর নোট রেখে দেওয়া হচ্ছে “ধর্ষনের শাস্তি”- হারকিউলিস। আর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ধন্যবাদ,প্রসংশাবানী দিয়ে প্রচার করা হচ্ছে এসব খবর। এ যেন আইনের প্রতি সবার আস্থাহীনতার বহিঃপ্রকাশ। সবাই আইনের বদলে আজ এই হারকিউলিসদেরই আইন মেনে চলছে।

ধর্ষণ যেমন অপরাধ বিনা বিচারে হত্যাও অপরাধ। এই অপরাধের লাগাম টেনে ধরা যাবে কেবলই ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে। সব অপরাধকে অপরাধ বলতে হবে।

এই হারকিউলিসকে যদি না থামানো হয় তবে কাল যে কারো লাশের পিছনে দিয়ে দিবে এই সাইড নোট। তখন অনেক নিরপরাধ ও অন্যায়ের সম্মুখীন হবে। আর এই হারকিউলিস তখন অপ্রতিরোধ্য হয়ে নিজেকে ফ্রাংকেস্টাইনের সেই দানবে রুপান্তর করবে এবং এখন যেমন ছোট হারে আইন, প্রশাসন ও বিচার ব্যবস্থাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখাচ্ছে তখন হয়তো পুরো রাষ্ট্রব্যবস্থাকে দেখাবে।তাই হারকিউলিস ফ্র্যাংকেস্টাইন হওয়ার আগে আগেই এইসব বিনাবিচারে হত্যাকান্ডের জন্য আইনের আওতায় আনতে হবে। এবং এই হারকিউলিসদের আশ্রয় প্রশ্রয় এবং সহায়তাকারীদের ও আইনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। আর এই হারকিউলিসদের তৈরীর পিছনের কারন হিসেবর ধর্ষনের বিচারের দীর্ঘসূত্রতা, বিচারহীনতার প্রবণতাও বন্ধ করার উদ্যোগ নিতে হবে। নাহলে হারকিউলিসকেও আটকানো যাবেনা এবং ধর্ষণ ও বন্ধ করা যাবেনা। তাই প্রশাসন, বিচার ব্যবস্থা,ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিজ দ্বায়িত্বে এই বিচারের কাজ দ্রুত করে জনগনের মাঝে আইনের প্রতি শ্রদ্ধা ও বিশ্বাস ফিরিয়ে এনে হারকিউলিসদের প্রতি সমর্থন বন্ধ করার জন্য কাজ করতে হবে।

Hits: 4

Comments
Loading...