Hits: 10

পরিবর্তনের স্বপ্ন

0

একটা ঔষধ কিনতে ফার্মেসিতে গেছি।দাম চাইলো পাতা ২০ টাকা করে।বললাম,এটাতো অন্য জায়গায় ১০ টাকা করে বিক্রি করে।আমি ১০ টাকার বেশী দিবানা।
বিক্রেতা বললো,১৫ টাকা করে দিয়েন।
-সেটা সম্ভব না।এটার দাম যা,তাহাই দিবো।
-আচ্ছা ভাই।১০ টাকাই দিয়েন।কিন্তু এটা কাউকে বইলেননা।
-কেন? বললে সমস্যা কি?
-এইসব দাম সমিতির আন্ডারে চলে।দাম কম-বেশী করলে তারা ঝামেলা করে।
———————
দেড় বছর পূর্বে চুল কাটাতাম ৪০ টাকা করে। এর কিছুদিন পরেই ৫০ টাকা হয়ে যায়।এর কিছুদিন পর চুল কাটাতে গিয়ে দেখি,সব জায়গায় পোস্টারে রেট লিখে রাখা।জিজ্ঞেস করতেই বলে,সিন্ডিকেট করে দাম বাড়ানো হয়েছে।
অথচ গত দেড় বছরে জিনিসপত্রের দামের খুব একটা হের-ফের হয়নি।মানুষ যে জীবনযাত্রা চালাচ্ছিলো,সেটা স্বাভাবিক পর্যায়ে ছিলো।কিন্তু সিন্ডিকেট করে চুল কাটানোর দাম বেড়ে গিয়েছে।এবং এই দাম বাড়ানোর সাথে আরো অনেকগুলো জিনিসের দাম বেড়ে গিয়েছে।
————————
প্রথম আলোর রিপোর্ট দেখছিলাম,রংপুর,দিনাজপুর,কুড়িগ্রামে কৃষকরা তাদের প্রকৃত দাম পাচ্ছেনা।ফুলকপি ৩ টাকা পিস,মুলা ১ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছিলো।কিন্তু ঢাকা শহরে এসে ফুলকপি ৩০ টাকা পিস ও মুলা ২৫ টাকা কেজি করে বিক্রি হচ্ছিলো।
আসলে আমরা উন্নতির কি দেখছি?দুইটা জায়গাতেই মানুষ প্রতারণার শিকার হচ্ছে।একদিকে কৃষক তার খরচ তুলতে সক্ষম হচ্ছেনা,আবার কাস্টমাররা অতিরিক্ত মূল্য দিয়ে কিনতে বাধ্য হচ্ছে।
——————————–
আসলে পরিবর্তনের স্বপ্ন কিভাবে দেখবেন?যখন একটি সমাজব্যবস্হা চালিত হয় কিছু মানুষের অনৈতিকতার উপরে।যারা সমাজব্যবস্হাকে একটি গন্ডির ভিতর আঁটকে দিতে সক্ষম হচ্ছে।
কিছুদিন আগে কলকাতার ‘জুলফিকার’ নামে একটি মুভি বের হয়।তাতে দারুণভাবে সিন্ডিকেটের বৈশিষ্ট্য দেখানো হয়।সিন্ডিকেটে কোন ক্ষমতাশীল নেতা থাকবেনা।সকলেই সামগ্রিক পরামর্শ নিয়ে সমাজ চলবে।সিন্ডিকেটর সদস্যরা যে সিদ্ধান্ত নিবে,সেটািই মেনে নিতে হবে।কেউ এর মাঝে একক ক্ষমতাশীল হয়ে জনপ্রিয় হলে তাকেই মেরে ফেলা হয়।
পরিবর্তনের দাবীটা খুব কঠিন।হয়ত সবাইই সুখী জীবনযাপন করছে,কিন্তু বাস্তবিকভাবে কেউ সুখী নেই।সবার মনের মাঝে ঘৃণা,হতাশা ও হিংসা কাজ করছে।কে কাকে দমিয়ে দিয়ে নিজেকে উপরে নিয়ে যাবে।

Hits: 10

Comments
Loading...