Hits: 0

খোলসায়িত মানুষ

0

অন্ধকারের কালো চাদর দুরে ঠেলে
বিবেকের ডাকে জেগে উঠি!
আর কত বধির হয়ে রবো?
আর কত অমানুষের পোশাক পড়ে রবো?
অবয়বে ‘মানুষ’ হয়ে ফায়দা কিসে?
যদি মন মহল ভরে থাকে নিকৃষ্ট পশুত্বে।
নেতিয়ে যাওয়া বিবেককে আর একবার জাগরণের গান শোনাই!
শোনাই ঈমানের শাণিত বানী।
ন্যায় অন্যায়ের প্রার্থক্য বুঝে
বাড়াতে হবে সামনে চলার গতি।
ভঙুর পৃথিবী শোধণ করে মনুষ্যত্যের পরিচয় দিতে হবে।
আমরা ‘মানুষ’!
দাবী করি জোড়সে..
অথচ সমাজ ভাঙনের হাতিয়ার আমাদের হাতেই গড়ে ওঠে।
শিক্ষায় নেই সুশিক্ষা…
জ্ঞানপাপীরা সমাজের হর্তাকর্তা।
বেড়ে গেছে অন্যায়, অবিচার নামক গাছের ডালপালা।
নীতির মূল উপ্রে
গ্রোথিত হয়েছে ভ্রষ্ট কৃষ্টি,
নষ্ট পথে পা কেটে আবার আমরাই করি ‘মানুষ’ দাবী।
নির্বাপিত হোক নীতিহীন রাজ্যের ব্যবসা,
পবিত্র হাওয়ায় শুকিয়ে যাক লোভের ঘাঁ।
নষ্ট আবেগের চোখ মুদে
বিপ্লবের রক্তে জেগে উঠুক মানবতা।
মানবতায় মিশ্রিত হোক শুদ্ধ মানবতা।
ভেদাভেদ ভুলে অবশিষ্ট থাকুক প্রতিশোধহীন ভালোবাসা।

Hits: 0

Comments
Loading...