Hits: 6

যতসব ফালতু শরিয়তী সেন্টিমেন্ট…‍!!!

0
আজ শুনলাম এক ভদ্রলোকের আনুষ্ঠানিকতার সামর্থ্য না থাকায় ৪০ বছর পেরিয়ে যাচ্ছে কিন্তু মাগার সুন্নতে খাতনা দিতে পারছেন না অর্থাৎ খাতনা হচ্ছে না। ভদ্রলোকের কষ্ট দেখে আমারতো খুব কান্না পাচ্ছিলো। কিন্ত কি আর করা..? সামাজিকতা বলেতো একটা কথা আছে তাই না। তাই পরামর্শ দিলাম, যতদিন সামর্থ্য না হয় ততদিন ধৈর্য্য ধরুন, কেমন..?? আপনি কি জানেন না..?? আল্লাহ ধৈর্যশীলকে পছন্দ করেন।
তখন ভাবলাম তাহলে যে সব ছেলেরা আনুষ্ঠানিকার সামর্থ্য না থাকার কারনে বিয়ে করতে পারছে না তাদের আর কি বা দোষ..?? সামাজিকতা বলে কথা..!! এখানে তো আর ঐসব ফালতু শরিয়তী সেন্টিমেন্ট দেখালে কাজ হবে না যে, বিয়েতে এসব আচার অনুষ্ঠান; তথাকথিত অওয়ালিমার অনুষ্ঠান বেদাত বা খুবই অপ্রয়োজনীয় কাজ। বিয়ে করবেন আর অনুষ্ঠান করতে পারবেন না। তাহলে তো আপনার জন্য বিয়ে এখনো যায়েজই হয়নি ..!! পাত্রীকে পার্সোনা থেকে সাজিয়ে আনতে না পারলেও অন্তত ব্রাইডল থেকেতো সাজিয়ে আনতেই হবে; তাছাড়া কমিউনিটি সেন্টার ভাড়া, বিয়ের অনুষ্ঠানই হবে কয়েক সপ্তাহ ধরে। তাতে কয়েক হাজার লাইট জ্বলতে হবে, বর-কনের গায়ে হলুদ হবে ১সপ্তাহ ধরে, বিয়ের সময় যাতে শ্যামলা রঙ কোনভাবেই প্রকাশ হয়ে না পড়ে তার জন্য আছে বিশেষ আয়োজন, বিশেষ ধরণের উপহার-সামগ্রী, বিশেষ আচার-বিচারও আছে। আছে কার্ড ছাপানোর ব্যবস্থা। তার পর হবে বিয়ের অনুষ্ঠান। তার জন্য বিশেষ পোশাক, বিশেষ উপহার, বিশেষ কার্ড। এ উপলক্ষে বিশেষ ভাবে সাজাতে হবে বাড়ী, প্রয়োজন হবে রাজকীয় গাড়ী। ওয়ালিমার অনুষ্ঠানে অন্তত ২০০-থেকে ৫০০ লোককে তো খাওয়াতেই হবে। তারপর বউভাত। সেখানেও কার্ড, উপহার, সাজ-সজ্জা, হাজার বাতি। তারপরেও শেষ হয় না। বর শ্বশুরবাড়ীতে গেলে পঁচিশ কেজি ওজনের রুইমাছ নিয়ে যেতে হবে, উপহার সামগ্রীর স্তুপ নিতে হবে, ইত্যাদি কত কিছু। পুরো অনুষ্ঠান অডিও-ভিডিও রেকর্ড এবং পরে সেটি থেকে মিউজিক ভিডিও তৈরি করে ইউটিওবে চ্যানেল খুলে আপলোড দেয়া, তারপর হানিমুন। আজকাল দেশের মধ্যে হানিমুন করার কথা উঠলে মান-সম্মান একবারেই চলে যায়। তাহলে..?? বয়স ৩৬ হয়ে যাচ্ছে বলে টেনশন করছেন..?? হা হা….!! টেনশনের কি আছে..?? আপনার টাকা আছে না..?? টাকা থাকলে আপনি নিশ্চিন্তে থাকুন। আমাদের অসংখ্য মুমিন ঐশরিয়া, ক্যারিনা আপু আছে ..?? খালি বিজ্ঞপ্তিটা দেন; তারপর দেখেন খেলা। কেমনে হিড়িক পড়ে যায়। তখন কোনটা রেখে কোনটা সেই টেনশনেই অস্থির হয়ে যাবেন…!!

ও হ্যা, যেসব যুবকরা ফালতু শরিয়তী সেন্টিমেন্টের অজুহাত দেখিয়ে এগুলো করা থেকে দুরে থাকবে বলে গো-ধরে বসে আছো তোমরা আপাতত দূরে থাকো। তোমাদের এখন বিয়ের বয়সই হয় নি। আর বয়স যদি হয়েই থাকে তাহলে ব্যবস্থাতো একটা আছেই। তোমারা সারা বছর রোজা থাকবা, কেমন..।। কেনো তুমি কি জানোনা.?? এটি আমাদের প্রিয় নবী (স.) বলেছেন, ‘যাদের সামর্থ্য নেই তারা যেন রোজা রাখে।’

তাহলে আমরা কন্ট্রোল করতে পারবে।

Hits: 6

Comments
Loading...