Hits: 2

সদা যখন অন্তরের গান গাই!

0

আমার এক সখী আমাকে ডাকিয়া কহিল,”দোস্ত দেখো! সর্বনাশ হইয়া গিয়াছে!”
আমি উদগ্রীব হইয়া কহিলাম,”আবার কি ঘটিল?”
সে ফেসবুকে কলেজের এক কাশ্মীরি ছেলের বিবাহের ফটো দেখাইয়া কহিল ,”দেখো! সব হ্যান্ডসাম যুবকের বিবাহ হইয়া যাইতেছে! আমি কাহাকে বিবাহ করিব?”

আমি দীর্ঘশ্বাস ছাড়িয়া কহিলাম ,”তুমি আমার সাথে মস্কারা করিতেছো! আমি তো ভাবিতেছিলুম ফের ভুমিকম্পন আরাম্ভ হইয়াছে!”

সে বলিল ,”ইহা মস্কারা হইলেও ইটা সত্যি- বিবাহের জন্য আমার হেন্ডসাম পাত্রই লাগিবে। কুৎসিত হইলে চলিবে না।”
আমি বলিলাম,”তাহলে বলো আমরা কিভাবে বর্ণ, সৌন্দর্যের ঊর্ধ্বে গিয়ে মানবতার জয়গান গাহিব?”
সে বলিল ,”তাহাও সত্য! কিন্তু এ কথাও সত্য আমি অনুধাবন করিতেছে যে আমার জামাইয়ের আমার মনপুত সৌন্দর্য না থাকিলে আমি উহাকে ভালোবাসিতে পারিব না!”
আমি বলিলাম,”তুমি এমন কেন ভাবিতেছো?”
সে বলিল,”তবে শোনো। রাসুল(সাঃ) এর কাছে এক সুন্দরী নারী আসিয়া কহিল,”ইয়া রাসুল। আমার মতের অমতে ঐ কুৎসিত লোকটার সাথে আমার বিবাহ হইয়াছে। কিন্তু উহাকে আমি কোন দিন ভালোবাসিতে পারিব না। উহার সাথে থাকিলে আমার জেনার সম্ভাবনা আছে। এখন আমি কি করিব?’; রাসুল(সাঃ) তাহাকে ঐ লোকের থেকে তালাক নিয়ে একটা সুন্দর পুরুষের সাথে বিবাহ দিয়া দেন।” ইহাতে তুমি কি বুঝিলে?

আমি বলিলাম ,”এই হাদিস তুমি কোথায় পাইয়াছো?”
সে বলিল,”ফেসবুকে।”
আমি তারপর অনেক ক্ষণ কোন কথা বলিতেছিলুম না দেখিয়া সে কহিল ,”কি ভাবিতেছো?”

-আমি বলিলাম ভাবিতেছি যে আমরা সবাই বলি প্রচলিত প্রথা বিপরীতে গিয়ে মানতার জয় গান গাহিব। কিন্তু সদা সবাই নিজের অন্তরের গান গাওয়াতেই মশগুল। তাই সমাজ বদলায় না। আমরাও না। আমরা যে অপরিবর্তিত থাকিতে ভালোবাসি! ”

Hits: 2

Comments
Loading...