Hits: 11

আমার আদরের পিচ্চি চাচ্চুটা

0

uju

আমার জীবনের অনেকটা অংশই দখল করে আছে সে

পিচ্চি বাচ্চারা আমার মনটাকে সবসময় চুম্বকের মত টানে।আর সেটা যদি তিন বছরের নিচে হয়,তাহলে তো কোন কথাই নেই।

প্রায় মাসখানেক পূর্বে বাড়িতে গিয়েই ভাইজান,ভাবী সবাইকে শহর থেকে বাড়িতে নিয়ে আসি।সাথে এক হালি ছেলেমেয়ে।সবার বড়টা আর ছোটটা আমার অন্ধ ভক্ত।ছোটটার বয়স দেড় বছরের মত।ছোটটা জানে,ওর একটাই চাচ্চু।যখনই ওদের বাসায় যাই,তখনই আওয়াজ করতে করতে চলে আসে।(কথা পুরোপুরি বলতে পারেনা)

বাড়ির সামনে সিএনজি থেকে নেমে পিচ্চিটাকে কোল থাকে নামিয়ে বললাম,ঐযে দাদু বাড়ি।এবার হেটে যাও।

আমি ব্যাগ নিয়ে বাড়ির দিকে যেতে থাকি।তখন উযাইরের সেকি কান্না!(চাচ্চু কোলে নিচ্ছেনা)।ওর কান্না শুনে ভাইজান বাড়ি থেকে বের হয়ে ওকে কোলে নেয়।তারপর বাড়িতে ব্যাগ রেখে ওকে কোলে নিতে যাই,কোলে আসছেনা।ভাবী বললেন-ও রাগ করছে।সিএনজি থেকে নেমে ওকে কোলে নাও নাই কেন।

সকাল থেকে নিয়ে সারাটা দিন বাড়ি আর পাড়া বেরিয়ে পা ব্যাথা করে ফেলেছে।মাগরিবের নামাজ পড়ে উযাইরকে কোলে নিয়ে রাস্তায় হাটছি আর আস্তে আস্তে কুরআন তিলাওয়াত করছি।আর উযাইর চুপ করে শুনছে।কিছুক্ষণ পরে কোলেই ঘুমিয়ে পড়লো।বাড়িতে এনে শুইয়ে দিলাম।

এমন সময় ভাইজান বলছেন-বাসায় একটু সমস্যা হয়েছে।রাতেই চলে যেতে হবে।

বাচ্চাদেরকে প্রস্তুত করা হয়েছে।উযাইরকে ঘুমের মধ্যেই তুলে নিলাম।সিএনজিতে ভাবী উঠার পর উযাইরের গালে,মুখে চুমু দিয়ে ভাবীর হাতে তুলে দিলাম।

অনেকদিন পর আজকে ভাবীর সাথে কথা বললাম।বলছেন-বাড়ি গিয়েছিলাম।উযাইর শুধু এ ঘর ও ঘর ঘুরছে।আম্মা বলছে-ও মনে হয়,বদরকে খুজছে।ও যে কিভাবে বাচ্চাদের এত তাড়াতাড়ি কাছে নিয়ে নেয়।

ছোট ভাই ভাইজানের বাসায় যাবে।ভাবী উযাইরকে বললেন-তোমার চাচ্চু আসতেছে।কলিংবেলের আওয়াজ শুনে এক গড়ান দিয়ে দরজার কাছে।দরজা খুলে যখন দেখলো চাচ্চু না।কান্নাকাটি শুরু করে দিলো।সারাদিন আর একবারের জন্যও ছোট ভাইয়ের কোলে যায়নি।

***সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে রক্ত দিতে গেলাম।এক নার্সের রুমের সামনে দিয়ে যাচ্ছি।দরজা দিয়ে নার্স বের হয়ে যাচ্ছে।ভিতরে একটা ফুটফুটে বাচ্চা খেলা করছে।ওর আম্মু বের হয়ে যাচ্ছে কান্নাকাটি শুরু করে দিলো।দৌড় দিয়ে গিয়ে বাচ্চাটাকে কোলে নিলাম।

ওর আম্মু যে কেবিনে গিয়েছিলো,ঐটার সামনে গিয়ে দাড়ালাম।একটু পর নার্স বের হয়ে আসলো।এতক্ষনে বাচ্চাটার সাথে খাতির হয়ে গেছে।যখন ওর আম্মুর কোলে তুলে দিচ্ছি,তখন একবার ওর আম্মুর দিকে তাকায় আরেকবার আমার দিকে তাকায়।বুঝতে পারছেনা,কার কোলে থাকবে।

এখনও যখন বাড়িতে যাই,তখন ভাইজানের বাসায় প্রথম ঢু মেরে যাই।আহমদ (বড় ভাতিজাটা) বলে-চাচ্চু,তুমি দিনে আসোনা কেন?সবসময় রাতে আসো।দিনে আসলে নৌকায় আগের মত ঘুরে বেড়াতে পারি।

-আব্বু,সন্ধ্যার আগে যে ঢাকা থেকে বেরুতে পারিনা।

(উযাইর বেশীরভাগ সময়ই নেংটি পড়ে থাকে বা ন্যাংটা থাকে,তাই ওকে ন্যাংটু চাচ্চু বলেই ডাকি)

Hits: 11

Comments
Loading...