Hits: 1

মনে মনে হাসি

0

আমি একটি কলেজে কিছুদিন চাকরি করেছি।কলেজটি আমি যে এলাকায় থাকি সে এলাকার একটি মোটামুটি ভালো কলেজ ।কলেজ টি কিছু ভাল মানুষের দ্বারা তৈরি হলেও পরবর্তীতে বিভিন্ন রকম লোকের আগমন ঘটে ।একেক জন একেক মতের একেক ঢংয়ের।তো শিক্ষিকাদের মধ্যে সব বিষয়ে ই তুমুল প্রতিযোগিতা লক্ষ করতাম।কে কারটাকে মলিন করে দিয়ে নিজের কীর্তি গলা ফাটিয়ে বলতে পারে ফিমেল টিচার্স রুমে যেন তারই প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে যেত।আমার ষটুডেনটরা কেউ ফেল করেনি ,সবচেয়ে বেশি এ প্লাস পেয়েছে,আমার ফেমিলি এই আমার বাবা সেই ,আমার ভাই আমেরিকান কোম্পানি তে চাকরি করে তার অফিস টাইম হল রাতে আমরা যখন ঘুমাই তখন সে অফিস করে ইত্যাদি ইত্যাদি অনেক কিছু ।এগুলো চুপচাপ শুনি মাঝে মাঝে হু হা করি আর মনে মনে বিরক্ত হই ।আমার খাতা দেখতে হবে বেগে করে হয়তো কোন বই নিয়ে গিয়েছি পড়ার আশায় কারণ আমি বাসায় সময় পাইনা সন্তান সংসার সবকিছু সামলে।বিরক্তিকর কথার আওয়াজ আর হাসিতে কিছু ই আমার মাথায় ঢোকেনা।এভাবে ই দিন পার হচ্ছিল ।এক মেডাম আবার গলাবাজিতে ছিলেন ফাস্ট ।তাকে কেউ কিছু বলে না কারণ তিনি কলেজের গভর্নিং বডির আত্মীয়।কলেজ প্রধানের ও কাছের লোক।সবাই কে ঐ মেডাম শুনিয়ে শুনিয়ে বিভিন্ন রকম কথা বলতেন ।তো একদিন শুনি উনি বলছেন “আমি তো কখনোই ভাত খাইনা ভাত খেয়ে খেয়ে কি ভেতো বাঙ্গালি হব নাকি ?ফাস্ট ফূড ছাড়া আমি কখনোই কিছু খাইনা “।আমি কথাটা শুনে অবাক হয়ে মনে মনে হাসলাম আর বললাম “হায়রে বাংগালি আমরা আর কত নীচে নামব?আমরা আজকাল ভাত খেতে ও লজ্জা পাই।”

Hits: 1

Comments
Loading...