Hits: 5

একজন আরেফীন

0

মাগরিবের নামাজ পড়ে মসজিদ থেকে বের হলো আরেফীন।কিছু দূর যাওয়ার পরেই এক ব্যক্তি কাছে এসে বললো-আপনাকে তালুকদার সাহেব ডাকতেছে।

-কেনো?তালুকদার সাহেব আমাকে ডাকবে কেনো?

-আমি জানিনা।উনি আমাকে বলছেন আপনাকে ডাকার জন্য,তাই ডাকতে আসলাম।

আরেফীন থমকে দাড়ালো।তালুকদার সাহেবের কাছে তো আমার তেমন কোন কাজ নেই।উনিও তো আমাকে কোনসময় তার কাছে ডাকেননি।তাহলে হঠাৎ করে উনি আমাকে ডাকলেন কেন?

কিছুক্ষণ পরে ধীর পায়ে আরেফীন তালুকদার সাহেবের বাড়িতে উপস্হিত হলো।আরেফীনকে দেখেই তালুকদার সাহেব শশব্যস্ত হয়ে উঠলেন।বসার আসন আনার জন্য হাঁকডাক শুরু করলেন।বউকে ডাকতে লাগলেন-ওগো সমীরের মা!ঘরে কি আছে,তাড়াতাড়ি নিয়ে আসো।

-না না চাচা!কিছু লাগবেনা।আপনি কি জন্য যেন দেখা করতে বললেন,তাই দেখা করতে আসলাম।

-তুমি তো বাজান,আমাদেরকে চেনোই না।এমনকি আমাদেরকে কোনসময় দেখতেও আসোনা!

-না চাচা।অন্যান্য কাজে খুব ব্যস্ত তো!তাই এদিকে খুব একটা সময় দিতে পারছিনা।

-যাক বাজান!তোমারে খুব জরুরী একটা কাজের জন্য খুজছিলাম।

-জ্বী চাচা,বলেন।

-একটু সময় নিয়ে বলতে হবে বাজান।অনেক জরুরী ব্যাপার তো!

-আমি তো খুব বেশিক্ষণ সময় দিতে পারবোনা।তবু যতটুকু বলতে পারেন,ততটুকু শুনি।

একটা গলা খাঁকারি দিয়ে তালুকদার সাহেব বলা শুরু করলেন….

-বাজান!তুমি তো জানো,আমি এইবারও চেয়ারম্যান নির্বাচনে খাড়াইতেছি।

-জ্বী চাচা!এটা আগেই শুনেছি।

-আমি আগেও তিনবার চেয়ারম্যানিতে খাড়াইছিলাম।কিন্তু একবারও জিততে পারি নাই।

-জ্বী চাচা।

-বাজান!আমার খুব শখ,আমি একবার চেয়ারম্যান হমু।

-চাচা,আমি আপনাকে এক্ষেত্রে কি করতে পারি?

-বাজান!তুমি যদি আমারে একটু সহযোগিতা করো,তাহলেই আমি চেয়ারম্যানিতে জিইত্যা যামু।

-কি রকম সহযোগিতা?

-বাজান!তোমারে এই অঞ্চলের সবাই একনামে চিনে।তুমি যদি আমার পক্ষে নির্বাচনে নামো,তাইলে এই অঞ্চলের অন্য কোন প্রার্থী আমার কাছে কোন পাত্তাই পাইবোনা।

-চাচা!আপনি তো জানেন,আমি আপনাদের রাজনীতিকে অপছন্দ করি।আর আপনি আমাকে আপনার পক্ষে রাজনীতিতে নামতে বলছেন!

-বাজান!তোমার যা লাগে,সব তোমারে দিমু।তুমি শুধু আমার পক্ষ থেকে একবার করে প্রত্যেক ঘরে ঘরে গিয়ে বলে দিবা,আমারে যেনো তারা ভোট দেয়।

-দুঃখিত চাচা!আমি এই কাজ করতে পারবোনা।

-বাজান!তোমার পায়ে পড়ি।তোমারে এলাকার আন্ডা-বুড়ো থেকে নিয়া সবাই সম্মান করে,তোমার ডাকে শ খানেক যুবক এক পলকে এক জায়গায় জড়ো হয়।সবাই বিপদে-আপদে তোমার কাছে ছুটে যায়,তুমিও সবার বিপদমুহূর্তে তাদের পাশে থাকো।

তুমি সবাইরে যেদিকে ভোট দিতে কইবা,সবাই সেদিকেই ভোট দিবো।

তুমি যদি আমার লগে না থাকো,তাইলে এইবারও আমি নির্বাচনে হারমু।

-চাচা!আমি আসলেই অনেক দুঃখিত।আমি আপনাকে অন্য ক্ষেত্রে হলে সহযোগিতা করতাম।কিন্তু রাজনীতির ক্ষেত্রে আপনাকে কোন সহযোগিতা করতে পারবোনা।

আমি আসি চাচা।

আরেফীন তালুকদার সাহেবের কাছ থেকে বের হয়ে গেলো।

তার এক-দুইদিন পর থেকে খান সাহেব,চৌধুরী সাহেব,সরদার সাহেবসহ বিভিন্ন প্রার্থীর পক্ষ থেকে মূল্যবান উপঢৌকনসহ নির্বাচনে যোগ দেওয়ার জন্য আহবান আসতে লাগলো।কিন্তু আরেফীন নীরস মুখে তাদের সবার প্রস্তাবই ফিরিয়ে দিলো।

আরেফীনের মুখে বিজয়ীর হাসি।তার সমাজ পরিবর্তনের কাজ রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।কিন্তু সে এখনই রাজনীতিতে জড়াবেনা।

যখনই তাদের নিজেদের মধ্যে থেকে সমাজকে সঠিক নেতৃত্ব দেওয়ার মত লোক উঠে আসবে,তখনই সে রাজনীতিতে প্রত্যক্ষভাবে ভূমিকা রাখবে।

Hits: 5

Comments
Loading...