অস্তিত্ব সংকট

সত্যের প্রদীপ জ্বলুক
স্বমহিমায়…
জ্বালিয়ে দিক আমার পাপী অন্তরাত্মাকে,
আবার আমি যেন, ‘আমি’ হয়ে উঠি।
আমার ভয়ংকর রাক্ষুসে নফস ধংস হোক
মিথ্যে মানুষের খোলস অগ্নিস্ফুলোকে ভষ্ম হোক,
অন্তরের আনাচে কানাচে নিরব পাপগুলো পঙ্গুত্ব বরণ করুক;
যেন আর ঘাড়ত্যাড়া হয়ে দাঁড়াতে না পারে।
আর আমি আমার অস্তিত্বের পাথর কুড়াই..
আবার পাথরে হোঁচটও খাই!
আসলে স্বচ্ছ অস্তিত্ব দেখে, নকল অস্তিত্বের কংকাল পথ রোধ করে দাঁড়ায়।
আমি আবার অস্তিত্ব সংকটে ভুগি!
চিন্তার জাল ভেদ করে আবার চিন্তা করি…
আমি মানুষ!
নাকি মানুষায়িত খোলসে আবৃত এক অভিশাপ?
তবে কেন?
আমাতেই ঘৃণ্য পাপ জন্ম নেয়,
আমিই কেন হই প্রলয় খেলার পুতুল?
আমার আলাদা একটা পরিচয় আছে!
আলাদা জগত..
যেখানে শান্তি খননের দায়িত্ব কেবল আমারই!
কিন্তু হায়!
আমার জগত চিহ্নিত করতে পারিনি,
অস্তিত্বের ঠিকানা ডায়েরি হতে মুছে গেছে।
তাই অস্তিত্ব পেতে ভুল পথে পা বাড়াই..
আলো ভেবে মরিচিকায় অনবরত সাঁতরাই।
তবুও না পাই
আমার অস্তিত্বের এক শিশির বিন্দু।

 

অস্তিত্ব সংকট অস্তিত্ব সংকট Reviewed by বায়ান্ন on April 09, 2016 Rating: 5

No comments:

Powered by Blogger.