যবনিকাপাত

জীবনের যবনিকাপাত

এই বুঝি এলো!

কিন্তু আমি আজও এলোমেলো।

এই পথে রক্ত ঝরে রক্ত কথা বলে,

আমি নিথর অথর্বো পা  কেটে যাই রক্তের ঘ্রাণ নিয়ে।

এখানের আকাশে একসময় সিতারার মেলা বসতো..

শুদ্ধ হাওয়ার ঢেউ খেলতো!

আমার অলসতা, কদর্যতার দরুন

সিতারাদের বীরত্বে হয়েছে কালি লেপণ।

আমি পারিনি পারিনা শুদ্ধ হাওয়ায় ফুল ফোটাতে,

আমি অনবরত ছাপ রেখে যাই লুলায়িত তাগুতের গোলাম হয়ে।

এখানে একসময় নীতির রাজ ছিলো,

বৈষম্যের বাধ গুঁড়িয়ে প্রথিত ছিলো ভ্রাতৃত্ব।

আমি মানিনি…

হাতে নিয়েছি ভাঙনের হাতিয়ার,

জোর করেই আদায় করবো বলে সম্মান।

অন্যায়ে সাঁতার কেটে ন্যায়ের চাদর পড়ে

ফাঁকি দিয়ে থেকেছি বন্ধু বেশে। নিজের রক্তে বিষ ঢেলে..

আজ অন্যের রক্তে গন্ধ খুঁজে ফায়দা কিসে?

ভাঙনের সয়লাব ঘটিয়ে..

আমার মত হাজারো আমি তৈরি করে,

আজ বুঝলাম করেছি কত বড় ভুলের গাছ রোপণ।

তাই সময় করেছে অনশন..

না হবে প্রত্যাবর্তন!

এখনি হয়তো  হবে জীবনের যবনিকাপতন।

 

 

 

 

যবনিকাপাত যবনিকাপাত Reviewed by বায়ান্ন on February 24, 2016 Rating: 5

No comments:

Powered by Blogger.