ভদ্রলোক কথাটা তার জন্য আসলেই যথেষ্ট ছিল

কিচ্ছুক্ষণ আগের কথা বলছি যখন ট্রেনের অপেক্ষায় প্ল্যাটফর্মে বসে আছি। ঠিক সামনেই একজন ভদ্রলোক বসে আছে। পরনে পাঞ্জাবি, পকেটে কলমের মাথার শেষ অংশটুকু উঁকি মারছে যা এখান থেকে দেখতে পাচ্ছি। বাম হাতে চেইনের একটা মাত্র ঘড়িও আছে। এক পায়ের উপর আরেক পা তুলে এমনভাবে বসে আছে তাতে মনে হচ্ছে বাংলাদেশে রাজতন্ত্র কায়েম হয়েছে আর উনি হলেন বাদশা। ভদ্রলোক কথাটা তার জন্যই যথেষ্ট।

কিছুক্ষণ পর চায়ের দোকানদার এক কাপ চা দিয়ে গেল। কিজানি মনে হল তাই ভদ্রলোকের চায়ের কাপের দিকে নজর দিলাম, দেখলাম চায়ের কাপের নিচে একটা বাটিও আছে। মোস্ট কিউরিয়াস ম্যাটার হল লোকটির চা খাওয়ার ভঙ্গিমা। সে প্রথমে অল্প একটু চা বাটিতে ঢেলে নিচ্ছে এরপর নেড়ে চেড়ে চুমুক দিয়ে খাচ্ছে। এভাবেই পুনরাবৃত্তি চলছে।

তার এসব অদ্ভুত কাজ দেখে আমি হাসি চেপে ধরে রাখতে চাইলেও পারছি না। কারণ উপচে উঠছে। তাই তার সম্মানার্থে সেখান থেকে উঠে পেছনে গিয়ে বসলাম।
পুনচঃ ভদ্রলোক কথাটা তার জন্য আসলেই যথেষ্ট ছিল।

ভদ্রলোক কথাটা তার জন্য আসলেই যথেষ্ট ছিল ভদ্রলোক কথাটা তার জন্য আসলেই যথেষ্ট ছিল Reviewed by বায়ান্ন on November 11, 2015 Rating: 5

No comments:

Powered by Blogger.